পুলিশের সাজানো মিথ্যা মামলায় কারাগারে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

হাতিরঝিল থানা ২২নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাকে হয়রানিমূলক ও মিথ্যা মামলা হিসেবে উল্লেখ করে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী রাজনীতির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীরা সাহসী ও রাজপথের সক্রিয় নেতা এবং দুঃসময়ের ত্যাগী নেতা মেহেদী হাসান এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার পরও অন্যদের তুচ্চ বিষয় নিয়ে তাকে মামলায় জড়ানোয় ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

সম্প্রতি মেহেদী হাসান কে হাতিরঝিল থানার ওসি ডেকে নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে সাজানো নাটক করে হেরোইন সহ গ্রেফতার দেখায় এবং ১ দিন পরে কোর্টে চালান দেওয়া হয়। রামপুরা থানার ২২নং ওয়ার্ডের আওয়ামিলীগের নেতাকর্মীরা বলেন যার নামে আগে কখনও কোন মাদকের মামলা ছিল না এবং দল ক্ষমতায় থাকাকালীন মিথ্যা মামলায় কারাগারে যেতে হবে কল্পনাও করতে পারছি না, অবিলম্বে মেহেদী হাসানের মুক্তি চায় তারা।

উল্লেখ্য এর আগে গত ২৯/০৪/১৯ তারিখে ২২নং ওয়ার্ড আওয়ামিলীগ এর সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এস.এম হুমায়ূন কবির হিমুকে হাতিরঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রশিদকেও থানায় ডেকে নিয়ে গ্রেফতার করার চেষ্টা করে।

২২নং ওয়ার্ড আওয়ামিলীগ এর নেতাকর্মীরা থানায় জড় হতে থাকলে হিমুকে সাদা জাগজে সই নিয়ে ওসি ছেড়ে দেন। এই ঘটনায় হিমু ওসির অপসারণ চেয়ে ফেসবুকে পোষ্ট করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *